Press Release
BASIS in Media
Current News
Press Kit
Upcoming Events
19 May 2019
BASIS has Placed ICT Budget Proposal to Hon’ble Finance Minister
18 May 2019
BASIS Iftar & Doa Mahfil 2019 Held
12 May 2019
BASIS Highlighted Transformation of Digital Bangladesh in China
08 May 2019
BASIS has Led Bangladesh Delegation at Japan IT Week 2019
04 May 2019
BASIS Vice President Meets Hon'ble Planing Minister
More News
Home » Industry News » Details
08 May 2012
Use of SAP increasing, Invested near about 400 Crore Taka

দেশে এসএপি সফটওয়্যারের ব্যবহার বাড়ছে দেশে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সামগ্রিক ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং (ইআরপি) সফটওয়্যারের ব্যবহার বাড়ছে। দেশে ব্যবহূত এসব সফটওয়্যারের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে জার্মান প্রতিষ্ঠান এসএপির তৈরি ইআরপি। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এসএপির সফটওয়্যার ব্যবহার করতে বিনিয়োগ হয়েছে প্রায় ৪০০ কোটি টাকা।
ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, সুপার শপ, ওষুধশিল্প, বস্ত্র ও রাসায়নিক খাতে সেবা দিচ্ছে এসএপি। এসএপির নতুন সেবার মধ্যে রয়েছে এসএপি এইচএএনএ, মবিলিটি, ক্লাউড প্রভৃতি। মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা, হিসাবরক্ষণ, মজুদ ও উত্পাদনসহ প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনাসংশ্লিষ্ট সব ধরনের তথ্য হালনাগাদ রাখার জন্য দেশের অনেক মাঝারি এবং বড় আকারের প্রতিষ্ঠান এখন ইআরপি সলিউশন ব্যবহার করছে। প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন বিভাগের মধ্যে সমন্বয় বৃদ্ধির মাধ্যমে সামগ্রিকভাবে কর্মদক্ষতাও বাড়ছে।
রহিমআফরোজ, শান্তা গ্রুপ, অটবি, ভিয়েলাটেক্সসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান এখন ইআরপির মাধ্যমে সামগ্রিক ব্যবস্থাপনার কাজটি করছে। এ ছাড়া বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে শেভরন, ডিএইচএল, বিওসি, ইউনিলিভার, সিনজেনটা এসএপি ইআরপি ব্যবহার করছে। বাংলাদেশ ব্যাংক, ডাচ্-বাংলা ব্যাংকসহ আরও বেশ কয়েকটি ব্যাংক এসএপির গ্রাহক। সম্প্রতি এসএপি ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি লিমিটেড (কাফকো)। খাতসংশ্লিষ্টদের মতে, দেশে ইআরপি সফটওয়্যারের প্রায় ৭০ শতাংশ ব্যবহারকারী এসএপির গ্রাহক। এ দেশে তাদের কার্যক্রম চলছে এসএপি ইন্ডিয়ার মাধ্যমে।
এসএপি ব্যবহার প্রসঙ্গে শীর্ষস্থানীয় তৈরি পোশাক রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান ভিয়েলাটেক্সের উপমহাব্যবস্থাপক (ইআরপি) জাভেদ ইকবাল বলেন, একটি নির্দিষ্ট মানদণ্ড অনুুযায়ী ব্যবসায়িক প্রক্রিয়াগুলো সম্পন্ন হয় ইআরপির মাধ্যমে। ফলে প্রতিষ্ঠানের গুণগত পরিবর্তন ঘটে। এ ছাড়া কর্মদক্ষতা বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে এ সফটওয়্যারগুলোর। এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের ভবিষ্যত্ ব্যবসায়িক দিকনির্দেশনা পাওয়া যায়। এসএপি বাস্তবায়নে প্রায় ২০ লাখ ডলার বিনিয়োগ করেছে ভিয়েলাটেক্স।
এ প্রসঙ্গে এসএপি ইন্ডিয়ার বাংলাদেশ টেরিটরি ম্যানেজার ফাহিম তানভীর আহমেদ জানান, ২০০৭ সালে এ দেশে এসএপির কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ২৬টি দেশী প্রতিষ্ঠান তাদের গ্রাহক। আর বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে এ হিসাবের মধ্যে ধরলে এ সংখ্যা ৩৫। এমনকি দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকেও ব্যবহার হচ্ছে এসএপির সফটওয়্যার।
বাংলাদেশ ব্যাংকে ২০১০ সালের সেপ্টেম্বরে ইআরপি প্যাকেজের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক এসএপি সফটওয়্যারের তিনটি মডিউল বাস্তবায়ন করেছে। এগুলো হলো ফিকো (অর্থ ও নিয়ন্ত্রণ), এমএম (ম্যাটেরিয়াল ম্যানেজমেন্ট) এবং এইচআর (মানবসম্পদ)। এর ফলে বাংলাদেশ ব্যাংকের যাবতীয় হিসাবায়ন, কর্মকর্তাদের বেতন-ভাতা, সব ধরনের ক্রয় কার্যক্রম, সম্পদ ব্যবস্থাপনা সম্পূর্ণ স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে সম্পন্ন হবে।
প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায়িক উন্নয়নের জন্য ইসিসি৬ সফটওয়্যার ব্যবহার করতে এসএপির সঙ্গে চুক্তি করেছে কাফকো। এর মাধ্যমে কাফকোর ব্যবস্থাপনাসংক্রান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়া আরও সুগঠিত হবে বলে জানান প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা। প্রতিষ্ঠানটির প্ল্যান্ট সাইট ও ঢাকা করপোরেট অফিসে এসএপি ইআরপি ব্যবহূত হবে।
সম্প্রতি এসএপি বাংলাদেশের গ্রাহকদের জন্য ‘অপটিমাইজ উদ্যোগ-ওয়ান’ নামের একটি বিশেষ বিজনেস অল ইন ওয়ান সলিউশন তৈরি করেছে। দেশে ইআরপি সফটওয়্যারের স্থানীয় চাহিদার কথা বিবেচনা করে এসএপি ও এর সহযোগী প্রতিষ্ঠান অপটিমাল সলিউশনস এ সফটওয়্যার তৈরি করেছে। একই সঙ্গে এসএপি বাংলাদেশে তাদের ব্যবসায়িক অবস্থান সুদৃঢ় করার পরিকল্পনা করছে বলে জানিয়েছেন এসএপি ইন্ডিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক পিটার গার্টেনবার্গ।
বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে বেশি ব্যবহূত ইআরপি সলিউশনগুলোর মধ্যে শীর্ষে রয়েছে এসএপি এজির তৈরি ইআরপি সফটওয়্যার। গার্টনার ডাটাকুয়েস্টের এক জরিপ অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী ইআরপি সলিউশনের বাজারের ৩০ শতাংশেরও বেশি এসএপির দখলে। তাদের বার্ষিক আয় প্রায় ১৯৪ কোটি ৯০ লাখ মার্কিন ডলার। বিশ্বজুড়ে ২৫টিরও অধিক ব্যবসায়িক খাতে সফটওয়্যার সেবা দিচ্ছে এসএপি। ১২০টি দেশে ১ লাখ ৮৩ হাজার গ্রাহক রয়েছে এসএপির। এসএপি এজি নিউইয়র্ক এবং ফ্রাঙ্কফুর্টের স্টক এক্সচেঞ্জে অধিভুক্ত।

Source: http://www.ebonikbarta.com

Share |

User ID
Password
Can't login?

Copyright © 2019 BASIS. All rights reserved.